bengali

ফেল-সমস্যা মেটাতে পুরনো নিয়মই বহাল রাখতে বললেন শিক্ষামন্ত্রী

Webdesk | Tuesday, February 6, 2018 10:39 AM IST

ফেল-সমস্যা মেটাতে পুরনো নিয়মই বহাল রাখতে বললেন শিক্ষামন্ত্রী

কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক স্তরে পার্ট ওয়ানে রেকর্ড সংখ্যক ফেলের ঘটনায় নতুন নিয়মকেই কাঠগড়ায় তোলা হচ্ছিল। তাই সমস্যার সমাধানে পুরনো নিয়ম বহাল রাখার জন্য আবেদন জানালেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। শিক্ষামন্ত্রী সোমবার বিধানসভায় জানান, নতুন নিয়ম যে চালু হয়েছে, সেই ব্যাপারে বহুল প্রচার হয়নি। পড়ুয়ারা বিষয়টি ভাল করে জানতেন না। সেই জন্যই পুরনো নিয়ম বহাল রাখার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে। একই সঙ্গে তিনি এ দিন পড়ুয়াদের আরও এক বার মনে করিয়ে দেন, পড়াশোনায় মন দিতে হবে। তিনি বলেন, ' মুখ্যমন্ত্রী (এত ফেলের জন্য) উদ্বিগ্ন, আমরাও উদ্বিগ্ন। পড়ুয়াদের বলছি, পড়াশোনায় মন দিন। '

ফেল-সমস্যা মেটাতে আজ, মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা।
রেকর্ড সংখ্যক ফেল এবং পরবর্তী পরিস্থিতি নিয়ে গতকাল বিধানসভায় শিক্ষামন্ত্রীর বিবৃতি দাবি করেন কংগ্রেস বিধায়ক অসিত মিত্র। মন্ত্রী বিবৃতি দিয়ে বলেন, ' সাধারণ ধারণা, নিয়ম বদলানোয় এটা হয়েছে। অন্য কারণও আছে। সিন্ডিকেট ব্যবস্থা নেবে। তবে আমি অনুরোধ করছি, পুরনো নিয়মই থাক। ' এখানে ‘অন্য কারণ’ বলতে শিক্ষামন্ত্রী পড়াশোনায় ছাত্রছাত্রীদের অমনোযোগের দিকে ইঙ্গিত করছেন বলেই মনে করছে শিক্ষা শিবির।

উল্লেখ্য, এ বার স্নাতক স্তরের পার্ট-১ পরীক্ষায় কলা বিভাগে ৫৭.৫০ শতাংশ ছাত্রছাত্রী ফেল করেছেন। বিজ্ঞানে পাশের হার কমেছে ১০ শতাংশ। এ ভাবে পাশের হার কমে যাওয়ার জন্য নতুন নিয়মকে দায়ী করেছেন পড়ুয়ারা। এই প্রেক্ষিতেই পুরনো নিয়ম চালু রাখার আবেদন জানাচ্ছেন শিক্ষামন্ত্রী।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রের খবর, ২০০৯ সালের পুরনো নিয়ম অনুযায়ী অনার্সের কোনও পড়ুয়া জেনারেলের দু’টি বিষয়ের কোনওটিতেই পাশ না-করলেও তিনি পার্ট-২ পরীক্ষায় বসার যোগ্য বলে বিবেচিত হতেন। পরে সাপ্লিমেন্টারি পরীক্ষা দিয়ে ওই সব বিষয়ে পাশ করতে হত সংশ্লিষ্ট পড়ুয়াকে। কিন্তু ২০১৬ সালের পরিবর্তিত নিয়মে অনার্সের পড়ুয়াকে বাধ্যতামূলক ভাবে জেনারেলের অন্তত একটি বিষয়ে পাশ করতেই হবে। একই ভাবে পুরনো নিয়মে জেনারেলের কোনও পড়ুয়া কোনও একটি বিষয়ে পাশ করলেই তিনি পরবর্তী পরীক্ষার জন্য যোগ্য বলে গণ্য হতেন। পরে সাপ্লিমেন্টারি দিয়ে পাশ করতে হত তাঁকেও। কিন্তু নতুন নিয়মে জেনারেলের পড়ুয়ার দু’টি বিষয়েই পাশ করা বাধ্যতামূলক। নতুন নিয়মে প্রথম পরীক্ষা হয় ২০১৭ সালে। তাতেই এই অভূতপূর্ব ঘটনা ঘটেছে।