bengali

অষ্টম শ্রেণির সহায়িকা বইতে বাল গঙ্গাধর তিলককে ‘সন্ত্রাসবাদের জনক’ বলা হলো

Webdesk | Saturday, May 12, 2018 10:03 AM IST

অষ্টম শ্রেণির সহায়িকা বইতে বাল গঙ্গাধর তিলককে ‘সন্ত্রাসবাদের জনক’ বলা হলো

বাল গঙ্গাধর তিলক সম্পর্কে একি পড়ানো হচ্ছে? দেখে চোখ কপালে ওঠার জোগাড়। যিনি দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের একজন পথপ্রদর্শক তাঁকে দেওয়া হচ্ছে সন্ত্রাসবাদীর তকমা। বিষয়টি ঠিক কি ঘটেছে? রাজস্থানের একটি স্কুলের সোশ্যাল স্টাডিজের সহায়ক বইতে বাল গঙ্গাধর তিলককে ‘ফাদার অফ টেররিজম’ বা সন্ত্রাসের জনক হিসেবে ব্যাখ্যা করা হয়েছে।

মথুরার একটি প্রকাশনা সংস্থা থেকে বইটি প্রকাশিত হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। একটি ইংরেজি মাধ্যম স্কুলে সেটি পড়ানো হচ্ছে। যদিও রাজস্থান বোর্ড অফ সেকেন্ডারি এডুকেশনের অনুমোদনেই বইটি সহায়ক হিসেবে রাখা হয়েছে। কিন্তু এমন কথা কেন বলা হলো তিলক সম্পর্কে?

এই সহায়িকা বইটির বাইশ নম্বর অধ্যায়ে দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের পাঠ দেওয়া হচ্ছিল পড়ুযাদের। সেখানে তিলককে সম্মান জানিয়েই বলা হয়, জাতীয়তাবাদী আন্দোলনের পথ খুলে দেন তিনি। সেই নিরিখে তাঁকে টেররিজম বা সন্ত্রাসের জনক বলে অভিহিত করা হয়। লেখা হয়েছে, তিলক ব্রিটিশের কাছে আবেদন-নিবেদনে বিশ্বাস করতেন না। তাতে যে কিছু হবে না তা তিনি বুঝতেন। তাই গণপতি পুজো ও শিবাজি উৎসবের মাধ্যমে গোটা দেশে জাতীয়তাবাদ জাগিয়ে তুলেছিলেন। পুরো অংশ থেকে কোথাও যে তিলককে অসম্মান করার উদ্দেশ্য ছিল তা মনে হয় না। সম্ভবত সশস্ত্র বিপ্লবের কথা বলতে গিয়েই ভুল শব্দ চয়ন হয়েছে। তার জেরেই এই বিভ্রান্তি।

এই প্রসঙ্গে কি বলছেন প্রকাশক? প্রকাশকের বক্তব্য, বোর্ডের নির্দেশিকা অনুযায়ীই বই লেখা হয়েছে। কোথাও সে নির্দেশিকা থেকে বিচ্যুতি নেই। অন্যদিকে অন্য বই না পাওয়ায় একাধিক ইংরেজি মাধ্যম স্কুলে তা পড়ানো হচ্ছে।